সূরা মমতাময়ী

Print Friendly, PDF & Email

সূরা মমতাময়ী মা

You claim that the evidentiary miracle is present and available, namely, the Koran. You say: “Whoever denies it, let him produce a similar one.” Indeed, we shall produce a thousand similar, from the works of rhetoricians, eloquent speakers and valiant poets, which are more appropriately phrased and state the issues more succinctly. They convey the meaning better and their rhymed prose is in better meter. … By God what you say astonishes us! You are talking about a work which recounts ancient myths, and which at the same time is full of contradictions and does not contain any useful information or explanation.

Then you say: “Produce something like it”?!


(০১)

শুরু করছি পরমকরুণাময়ী সেই মায়ের নামে, যিনি গর্ভে ধারণ করেছেন।

(০১: ০১)

আমাদের পরম করুণাময়ী মা।

(০১: ০২)

যিনি শিক্ষা দিয়েছেন প্রিয় বাঙলা বর্ণমালা,

(০১: ০৩)

জন্ম দিয়েছেন মানুষকে,

(০১: ০৪)

তাকে শিখিয়েছেন পথচলা।

(০১: ০৫)

নাড়ির গতি তার হিসাবমত চলে।

(০১: ০৬)

এবং সন্তানের মস্তক যার প্রতি সেজদারত থাকে সর্বদা।

(০১: ০৭)

তিনি নিজ গর্ভকে করেছেন জান্নাতের মত এবং প্রেরণ করেছেন খাদ্য।

(০১: ০৮)

যাতে তোমরা মাতৃজঠরে মৃত্যুবরণ না করো।

(০১: ০৯)

বলেছেন তোমরা ন্যায়ের পথে চলো এবং মানুষের ক্ষতি করো না-ইহাই মানবধর্ম।

(০১: ১০)

তিনি ধরিত্রীর বুকে হয়ে উঠেছেন ধরিত্রী।

(০১: ১১)

খাইয়েছেন নিজে ক্ষুধার্ত থেকে, পিপাসার্ত থেকে।

(০১: ১২)

রক্ষা করেছেন সমস্ত ঈশ্বর এবং সমস্ত অপদেবতার হাত থেকে।

(০১: ১৩)

অতএব, তোমরা তোমাদের মমতাময়ী মায়ের কোন অনুগ্রহকে অস্বীকার করবে?

(০১: ১৪)

তিনি মানুষকে সৃষ্টি করেছেন নিজের রক্তমাংশের শরীরের অংশ থেকে।

(০১: ১৫)

দশ মাস অক্সিজেন দিয়েছেন নিজের ফুসফুস থেকে-খাদ্য দিয়েছেন নিজে অভুক্ত থেকে।

(০১: ১৬)

অতএব, তোমরা তোমাদের মমতাময়ী মায়ের কোন কোন অনুগ্রহ অস্বীকার করবে?

(০১: ১৭)

তিনি পৃথিবীর বুকে অনাদীকালের নির্যাতিত, নিপীড়িত-পুরুষশাসিত সমাজ দ্বারা।

(০১: ১৮)

অতএব, তোমরা সেই মমতাময়ী মায়ের কোন অবদানকে অস্বীকার করবে?

(০১: ১৯)

তিনি ভালবাসার উষ্ণ ঝর্নাধারা প্রবাহিত করেছেন।

(০১: ২০)

বুকের দুধ দ্বারা পুষ্টি যুগিয়েছেন, যার ঋণ শোধ করা যায় না।

(০১: ২১)

অতএব, তোমরা তোমাদের মমতাময়ী মায়ের কোন অবদানকে অস্বীকার করবে?

(০১: ২২)

উভয় স্তন থেকে উৎপন্ন হওয়া দুধের প্রবাহ, যা গঠন করে মস্তিষ্ক, হাত পা এবং শরীর।

(০১: ২৩)

অতএব, তোমরা তোমাদের মমতাময়ী মায়ের কোন কোন অবদানকে অস্বীকার করবে?

(০১: ২৪)

অতএব তুমি বল, মমতাময়ী মা’ই সর্বশ্রেষ্ঠ ঈশ্বর।

(০১: ২৫)

পরম করুণাময়ী, দেবী তিনি, স্রষ্টা সমগ্র মানবজাতির।

(০১: ২৬)

আর তোমরা তোমাদের মমতাময়ী মায়ের কোন অবদানকে অস্বীকার করবে?

(০১: ২৭)

এবং আরাধনা কর তোমাদের নিজ নিজ মাতৃকুলের

(০১: ২৮)

নিশ্চয়ই সেই আরাধনাই শ্রেষ্ট আরাধনা

(০১: ২৯)

এবং তোমরা ন্যায়ের পথে চল, সত্যের পথে চল।

(০১: ৩০)

নিশ্চয়ই তাতেই মানবজাতির মঙ্গল

(০১: ৩১)

আর ভালবাসো মানুষকে, ধর্ম, বর্ণ, লিঙ্গ নির্বিশেষে।

(০১: ৩২)

তিনি যেমন ভালবেসেছেন তোমাকে।

(০১: ৩৩)

যে ভালবাসা ভয় বা লোভের মাধ্যমে অর্জিত নয়।

(০১: ৩৪)

অতএব, তোমরা সেই মমতাময়ী মায়ের কোন অবদানকে অস্বীকার করবে?

(০১: ৩৫)

অতএব, তোমরা তোমাদের মমতাময়ী মায়ের কোন কোন অবদানকে অস্বীকার করবে?

আসিফ মহিউদ্দীন

আসিফ মহিউদ্দীন

আসিফ মহিউদ্দীন সম্পাদক সংশয় - চিন্তার মুক্তির আন্দোলন [email protected]

18 thoughts on “সূরা মমতাময়ী

  • জানুয়ারী 15, 2017 at 7:41 অপরাহ্ন
    Permalink

    অসাধারণ লেখনী। আল্লার বাপের বাপও এমন সূরা লিখতে পারত না (অবশ‍্য থাকলে)। এমন বাণীর প্রচারক দুনিয়ায় আসলে কতই না ভাল হত !!

    Reply
  • জানুয়ারী 15, 2017 at 8:43 অপরাহ্ন
    Permalink

    লা জওয়াব। কি আর বলব। লেখককে সহস্র সালাম, নমস্কার । এমন মধুর বাক্য পড়লে মনটাই কেমন সিক্ত হয়ে ওঠে।

    Reply
  • জানুয়ারী 17, 2017 at 4:51 অপরাহ্ন
    Permalink

    চাপাতির কোপের ভয়ে অনেকেই চুপ রয়েছে । এখন লিখা বন্ধ । শুধুই পড়া । কোপ না খাওয়ার চাইতে চুপ থাকাই শ্রেয় ।

    Reply
  • জানুয়ারী 26, 2017 at 4:05 পূর্বাহ্ন
    Permalink

    অতুলনীয়, হৃদয় ছুয়ে গেল।

    Reply
  • জানুয়ারী 26, 2017 at 6:48 পূর্বাহ্ন
    Permalink

    Simply WOW

    Reply
    • ডিসেম্বর 2, 2020 at 12:48 পূর্বাহ্ন
      Permalink

      (1) শুরু করলেন মার নামে, তাইলে বাবা কি দোষ করলো? বাবা ওতো মার মতোই সন্তান জন্মদানে ভুমিকা পালন করেন?

      (2) সব মা ই করুণাময়ী হয় না, কিছু মা মাতৃগর্ভ অবস্থায় অপারেশন করে বাচ্চা নষ্ট করে ফেলে, বাচ্চা জন্মের পর ময়লা আবর্জনার স্তূপে ফেলে রেখে যায় এবং কিছু টাকার জন্য সন্তান বিক্রি করে দেয় অনেকে গলা টিপে হত্যা করে।

      (3) মা কি শুধু বাংলাদেশেই? সব দেশই মা আছে, মা শুধু বাংলা ভাষা শিক্ষা দেননা বরং আরো অন্যান্য প্রয়োজনীয় ভাষাও শিক্ষা দেন।

      Reply
      • ফেব্রুয়ারী 26, 2021 at 2:04 অপরাহ্ন
        Permalink

        apne bujte paren nai vai. Aye sura ta shudu bangladesh a boshobashkari valo mayeder bibechonae rekhe najil hoeche.ar apnar lekhata black and white fallacy r adorsho akta udahoron.

        Reply
        • মে 12, 2021 at 9:45 পূর্বাহ্ন
          Permalink

          Apnader (Nastikder) Khoda Banglar Shimanar moddhe atakay gesen mone hosse, Shahittik man bibechonay eshob third-class kobita Quran keno Quran er jara oitashik birodhi chilo, tader man er dhare kaseo ase na….Kobita Arbi te ba Banglay je keo likhte pare, Quran er style eo likhte pare, kintu Quran er challenge hosse ekti specific literary style ke create korar, jetar bepare nunnotomo shommok dharonao apnader karo nai

          Reply
  • এপ্রিল 3, 2017 at 4:49 পূর্বাহ্ন
    Permalink

    speechless

    Reply
  • মার্চ 23, 2019 at 5:57 পূর্বাহ্ন
    Permalink

    এই লেখা মনে হয় সামুতে দেখেছিলাম, ২০১০ সালের দিকে। তখন আমি সবে ক্লাস টেনে… এখন আবার দেখে ভাল লাগল…

    Reply
  • ডিসেম্বর 24, 2019 at 2:50 অপরাহ্ন
    Permalink

    ধন্যবাদ, এত সুন্দর করে “মা” এর রচনা উপস্থাপনের জন্য। গরু, ছাগল, গালা, কলা বিজ্ঞান রচনাগুলো দিলে আরো উপকৃত হব?

    Reply
  • ফেব্রুয়ারী 12, 2021 at 2:50 অপরাহ্ন
    Permalink

    পবিত্র কুরআনের একটা আয়াতও মিথ্যা প্রমান করতে পারবেনা কেউ । আর আপনার লেখা কবিতায় মিথ্যায় ভরা, মায়ের প্রশংসা করেছেন ভাল কথা, কিন্তু সব মা যে এক নয় সেইটা ভাবা উচিত ছিল। অনেক মা তার সন্তানকে গর্ভেই মেরে ফেলে। তাহলে তার কিসের অবদান থাকলো এইখানে ? আল্লাহ তায়ালা আপনাদের হেদায়াত দান করুন। আমিন।

    Reply
    • ফেব্রুয়ারী 26, 2021 at 2:09 অপরাহ্ন
      Permalink

      ar vai apni bujte paren nai. Aye sura ta shudhu bangladesh ar valo mayeder jonno najil hoeche. ar akhane aktu lokhho koren ja shudhu valo mayeder kotha kano bola hoeche, karon bangladesh ar prithibir beshir bagh mai nijer bacchader valo bashe ar jotno kore. jodi arokom nahoto tahole prottek dini news channel a dukhojonok khobor peten. Dekhsen sura tar koto power, beshir bagh mai ja valo ta boila dise. Karo kono khomota nai aye sura take bhul proman korbe. ar apnar kothae black and white fallacy ase.

      Reply
    • আগস্ট 31, 2021 at 10:56 পূর্বাহ্ন
      Permalink

      সামান্য কিছু মা যদি শারীরিক, অর্থনৈতিক বা সামাজিক কারণে না জন্মানো ভ্রুণ নষ্ট করে তাতে আপনাদের গায়ে জ্বালা ধরে | আর মুসলিম দেশে লক্ষ লক্ষ হত দরিদ্র মায়েরা যে ১০/১২ টা করে বাচ্চা শুধু জন্ম দিয়েই খালাস, সেই বাচ্চাদের খাওয়া, পড়া, চিকিৎসা, শিক্ষা কোনো দায়িত্ব তারা নিতে পারে না তাতে আপনাদের কোনো অভিযোগ নেই | এভাবে শুধু জন্ম দেওয়ার থেকে জন্ম না দেওয়া অনেক যুক্তি সঙ্গত কাজ | সেই সব অবহেলার, অনাদরের, অশিক্ষার বাচ্চারা বড়ো হয়ে হয় সমাজবিরোধী হয় নয় তো দেশে দেশে ইসলামের নামে জিহাদ করে বেড়ায় আর নিরীহ মানুষ মারে | এক মায়ের ভুলে অনেক মানুষের ক্ষতি |

      আর আল্লা নামে যদি আয়াত লেখা যায় যে কিনা ভূমিকম্প, আগ্নেয়গিরি, সাইক্লোন, উল্কাপাত, ধ্বস, বন্যা, মরুঝড়, করোনা, ক্যান্সার, ইবোলা, কলেরা, প্লেগ, পক্স ইত্যাদি ইত্যাদি তে কোটি কোটি শধু মানুষ নয় নানা প্রাণী হত্যা করেছে এবং আগামী দিনেও করবে, তবে সবার নামে আয়াত লেখা যাবে কারণ আল্লার মতো অত প্রাণী হত্যা কেউ করেনি আর করবেও না |

      Reply
  • নভেম্বর 22, 2021 at 11:10 অপরাহ্ন
    Permalink

    অসাধারণ

    Reply
  • ডিসেম্বর 9, 2021 at 2:32 অপরাহ্ন
    Permalink

    খুব সুন্দর লিখেছেন। এবার সূরাটি মুখস্থ করুন। প্রতিদিন সকালে ৪ বার, দুপুরে ১০ বার, বিকালে ৪ বার, সন্ধ্যায় ৫ বার, রাতে ৯ বার মুখস্থ আবৃত্তি করুন। এক মাস এক নাগাড়ে চর্চা করুন। তারপর আপনার অনুভূতি ব্যক্ত করুন। যদি ভাল লাগে আপনার সবচেয়ে প্রিয়জনকে এটি উপহার হিসাবে দিন এবং ১ মাস একই কাজ করতে বলুন। তারপর তাঁর একজন ভক্তকে একই অনুরোধ করতে বলুন। এভাবে এমএলএম পদ্ধতি অবলম্বন করে আপনার রচিত সূরাটির কয়েকজন হাফেয সৃষ্টি করুন যারা নিয়মিত দৈনিক ৩২ বার মুখস্থ আবৃত্তি করবে। এবার আপনার সূরার মূল্যায়ন আপনি নিজেই করুন এবং ফলাফল সবাইকে জানান। দেখুন এটি কোরআনের কোন সূরা বা আয়াতের তুলনায় মানব সমাজে কতখানি আবেদন সৃষ্টি করেছে।

    Reply
  • জানুয়ারী 5, 2022 at 12:12 পূর্বাহ্ন
    Permalink

    এই সূরা সমাজে কোন আবেদন সৃষ্টি করতে পারবেনা ৷

    Reply

Leave a Reply

%d bloggers like this: